সঠিক সময়ে, সঠিকভাবে চিকিৎসা গ্রহন করলে মৃগী রোগীরাও সুস্থ জীবন-যাপন করতে পারে।

0
337

কিন্তু, এখনো অনেকের দৃষ্টিতে মৃগী রোগ একটি অভিশাপ!
বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের নিয়ে রেডিও সৈকতের বিশেষ অনুষ্ঠান “তারার আলো”র এবারের পর্বে আমরা কথা বলি মৃগী রোগে আক্রান্ত ৮ বছর বয়সী শিশু আজিজুল সিরাজের পরিবারের সাথে। দরিদ্র টমটম চালক পিতা সিরাজুল ইসলাম শিশুর চিকিৎসার জন্য তার সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছেন। পিতা সিরাজুল ইসলাম জানান ,শৈশবে তার শিশু হামাগুড়ি দিতে পারতো না। অনেক বার ডাক্তার দেখালেও ধরা পড়েনি কিছুই। হঠাৎ ই ২ বছর বয়সে শিশু আজিজুলের খিচুনি শুরু হয় । ধার দেনা করে পিতা সিরাজুল ইসলাম ঢাকার পিজি হাসপাতালে তার শিশুকে নিয়ে আসে ব্রেইনের সিটি স্ক্যান করতে । প্রাথমিক চিকিৎসায় ধরা পড়লো তার শিশু মৃগী রোগে আক্রান্ত । সংসারের অভাব অনটন এর মধ্যে শিশু আজিজুল সিরাজের ব্যয়বহুল চিকিৎসার খরচ বহন করা তার দরিদ্র টমটম চালক পিতার পক্ষে প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ছে। সমাজের বিত্তশালী মানুষদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

শিশু সিরাজুল ইসলাম একটি সুন্দর ও স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাবে এই প্রত্যাশা থাকবে রেডিও সৈকতের। বর্তমানে মৃগী রোগের উন্নত চিকিৎসা আছে। তাই, মৃগী রোগ ধরা পড়লে তথ্য গোপন না করে সঠিক সময়ে, সঠিকভাবে চিকিৎসা গ্রহন করলে সুস্থ্য জীবনে ফিরে আসা সম্ভব।

Spread the love

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here